ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪২৬, ১৯ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘আমাদের জন্য সবগুলো দলই হুমকি’

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৬ ৬:৪৯:৫১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৯-০৬ ৬:৫০:৫৭ পিএম
Walton AC 10% Discount

ক্রীড়া প্রতিবেদক: এশিয়া কাপে সবগুলো দলকেই ফেবারিট মানছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। কাউকেই এগিয়ে রাখছেন না জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক।

বাংলাদেশেরও এশিয়া কাপ জয়ের সম্ভাবনা আছে বলে মনে করেন মাশরাফি। সেই সামর্থ্য দলের রয়েছে। রয়েছে ম্যাচ উইনার পারফর্মার। এশিয়া কাপে যারা অংশগ্রহণ করছে প্রত্যেকের বিপক্ষেই ওয়ানডেতে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স দারুণ। সাম্প্রতিক সময়ের পারফরম্যান্স বেশ ঈর্ষণীয়।

২০১৫ বিশ্বকাপের পর ঘরের মাঠে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ এবং ভারতের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ না জিতলেও সিরিজ ড্র করেছে এবং একাধিকবার জয় পেয়েছে। জয় পেয়েছে আফগানিস্তানের বিপক্ষেও। হংকংয়ের বিপক্ষে একটি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ সেটাতেই জিতেছে। সব মিলিয়ে অংশগ্রহণকারী সবগুলো দলের বিপক্ষেই জয়ের রেকর্ড রয়েছে বাংলাদেশের। তাই বাস্তবতা বিবেচনায় বাংলাদেশেরও এশিয়া কাপ জয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

‘অংশগ্রহণকারী দল গুলো যদি দেখেন, তাহলে আমরা খুব বেশি পিছিয়ে নেই। হয়তো ভারত অনেক ভালো দল। পাকিস্তান তাদের ঘরের মাঠে খেলবে। কিছুটা বাড়তি সুবিধা তারা পাবে। তাদের দলে রিস্ট স্পিনার বেশি আছে। তবুও আমার কাছে মনে হয় আমাদের সামর্থ্য আছে তাদেরকে হারানোর। আমার কাছে মনে হয় আমরা খুব বেশি পিছিয়ে নেই।’-বলেছেন মাশরাফি।

দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলতে হলে বাংলাদেশকে প্রথম রাউন্ডের বাঁধা টপকাতে হবে। গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান। তাই বাংলাদেশ দল আপাতত শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তানকে নিয়েই ভাবছে। মাশরাফি বলেছেন,‘আমাদের জন্য সবাই হুমকি। বিশেষ করে আমাদের গ্রুপে যারা আছে, ছয় দল পর্যন্ত যাওয়ার আগে তো আমাদের দুটা দলের সাথে খেলতে হবে। আফগানিস্তানের বোলিং শক্তি, শ্রীলঙ্কার অলরাউন্ড সামর্থ্য, সব দিক বিবেচনা করলে যে কোন কিছুই হতে পারে।’

বিরাট কোহলি খেলছেন না এশিয়া কাপে। তাকে ছাড়াও ভারতীয় দলকে শক্তিশালী বলছেন অধিনায়ক। তবে কোহলি না থাকায় অন্যদের জন্য ভালো সুযোগ ও সুবিধা দেখছেন মাশরাফি। 
 


সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলার অভিজ্ঞতা নেই বাংলাদেশ দলের। ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলায় তামিম, সাকিব, মাহমুদউল্লাহরা খেলেছেন দুই-তিনটি ম্যাচ। বিরুদ্ধ কন্ডিশনের সঙ্গে অজানা উইকেট। নিশ্চিতভাবেই ক্রিকেটাররা কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন।  তবে এসব নিয়ে ভাবতে নারাজ অধিনায়ক। সাফ জানালেন, বর্তমান সময়ে এ ধরণের চিন্তা ব্যাকফুটে ঠেলে দেয় যেকোনো দলকে।

উদাহরণ টেনে মাশরাফি বলেন,‘অস্ট্রেলিয়ায় যখন ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলি, তার আগে কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে আমাদের স্মৃতি খুব ভালো ছিল না। ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালও তাই। মাঠ বা আউটফিল্ড আমাদের পক্ষে না থাকে তাহলে পারফর্ম করতে পারব না, সেই বিশ্বাস নিয়ে যাওয়া ঠিক হবে না। অনেক জায়গায় আমরা সফল হয়েছি যেখানে আমাদের সামর্থ্য নিয়ে অনেক প্রশ্ন ছিল। এমন অনেক ভালো খারাপের মধ্য দিয়েও আমরা সফল হয়েছি। এগুলো আসলে আমার কাছে খুব বড় ইস্যু মনে হয় না।আগে যেই টুর্নামেন্ট খেলেছি সেগুলোও কঠিন ছিল। এবারো পরিস্থিতি অবশ্যই কঠিন হবে। আমাদের মনে হয় আমাদের সামর্থ্য আছে। আমার বিশ্বাস সবাই পারফর্ম করবে।’

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮/ইয়াসিন/শামীম

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge