ঢাকা, সোমবার, ৩ আষাঢ় ১৪২৬, ১৭ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

মাকে দেখার সৌভাগ্য হয়নি: মনিরা মিঠু

আমিনুল ইসলাম শান্ত : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-১২ ৮:৪৩:২০ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-১২ ১১:২২:৩০ এএম
Walton AC 10% Discount

বিনোদন ডেস্ক: ‘তুমি যেদিন থাকবে না মা/ সেদিন আমার হবে কি/ সুখে থাকি দুঃখে থাকি/ কাহার আসবে যাবে কি’—খান আতাউর রহমানের লেখা গানের এ কথাগুলো যেন প্রতিটি সন্তানের মনের কথা।

প্রতিটি মাকে শ্রদ্ধা জানাতে বিশ্বব্যাপী পালিত হয়ে আসছে ‘মা দিবস’। ইতিহাস থেকে জানা যায়, ১৯১২ সালে আনা জার্ভিস মাদারস ডে ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন (আন্তর্জাতিক মা দিবস সমিতি) গঠন করেন। এমনকি তিনিই ‘মে মাসের দ্বিতীয় রোববার’ আর ‘মা দিবস’ এই দুটি শব্দের বহুল প্রচার চালাতে সক্ষম হন। তবে এখন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভিন্ন ভিন্ন তারিখে এ দিনটি পালিত হয়ে থাকে।

মা দিবস উপলক্ষে রাইজিংবিডির সঙ্গে কথা বলেন অভিনেত্রী মনিরা মিঠু। স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, ‘মাকে নিয়ে আমার কোনো স্মৃতি নেই। আমি তো মাকে দেখিনি। আমার নয় মাস বয়সে মা মারা গেছেন। আমি যতটুকু শুনেছি মার জন্ডিস হয়েছিল। তারপর সম্ভবত লিভারে ইনফেকশন হয় তারপরই মা মারা গেছেন। যার কারণে মাকে দেখার সৌভাগ্য আমার হয়নি। মাকে নিয়ে কোনো স্মৃতি না থাকার কারণে মাকে কখনো স্বপ্নও দেখি না। কিন্তু মাকে আমার জীবনের প্রতিটি মুহূর্তে অনুভব করি।’

তিনি আরো বলেন, ‘তবে কাজ করতে এসে অনেক দেখেছি— বিবাহিত কিংবা অবিবাহিত অভিনেত্রীরা তাদের মায়ের কাছ থেকে কতটা সুযোগ সুবিধা পান। ধরুন, শুটিংয়ের আগে মাকে বলে দিল, কস্টিউমগুলো রেডি রেখ কিংবা শুটিং সেটে আসার পর কোনো কিছু বাসায় রেখে এসেছেন তখন সবাই মাকে বলেন, ওটা নিয়ে এসো। তখন খারাপ লাগে। কারণ আমার মা বেঁচে থাকলে আমার জন্যও এসব করতেন। আমার সন্তানেরা তাদের নানুর আদর পায়নি। ভাবলে খুব খারাপ লাগে। আর কাজ শেষে যখন বাসায় ফিরি, তখন আমার ছেলে আমার হাতে খেতে চায়। যদিও ও অনেক বড় হয়ে গেছে। আমি যখন আমার সন্তানকে খাবার খাওয়াই তখন অনেক মন খারাপ হয়ে যায়। কারণ আমি এই আদরটা পাইনি। আমিও তো এ আদর পেতে পারতাম!’




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ মে ২০১৯/শান্ত

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge