ঢাকা, বুধবার, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২৬ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

রাজশাহীর ৮৩ শতাংশ স্কুলের পাশেই তামাকের দোকান

তানজিমুল হক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-২০ ৩:০৪:৫৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-১৮ ৫:১১:২২ পিএম
Walton AC 10% Discount

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী: রাজশাহী বিভাগের ৮৩ শতাংশ স্কুলের পাশে সহজেই মেলে তামাক। মুদি এবং ভাসমান দোকানে তা দেদারসে বিক্রি হচ্ছে।

রাজশাহীর ৭৭ শতাংশ স্কুলের পাশে রয়েছে ক্ষুদ্র মুদির দোকান। আর স্কুলের সামনে রাস্তার পাশে তামাকের দোকান ১২ শতাংশ এবং ভ্রাম্যমাণ বিক্রেতা পাওয়া গেছে ৩ শতাংশ। একটি জরিপে উঠে এসেছে এ তথ্য।

‘ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিডস’ এর সহায়তায় এবং ‘ঢাকা আহছানিয়া মিশন’ এর নেতৃত্বে উন্নয়ন সংস্থা এসিডি, ইপসা, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন এবং উবিনিগ যৌথভাবে ‘বিগ টোব্যাকো টিনি টার্গেট’ শিরোনামে শিশুদের প্রতি তামাক কোম্পানির বর্তমান অবস্থা পর্যবেক্ষণে ২০১৭ সালে জরিপটি পরিচালনা করে। গত রোববার জরিপের ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

রাজশাহীর উন্নয়ন সংস্থা এসিডি জানিয়েছে, গবেষণাটি বাংলাদেশসহ ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কাতেও এক সাথে পরিচালিত হয়। ওই গবেষণা প্রতিবেদনের ফলাফলে রাজশাহী বিভাগে ৮৩ শতাংশ স্কুলের পাশেই তামাক বিক্রির চিত্র পাওয়া গেছে। আর ৮৬ শতাংশ দোকানে শিশুদের দৃষ্টির সমান্তরালে (আনুমানিক ১ মিটার) তামাকজাত দ্রব্য প্রদশির্ত হচ্ছে।  চকলেট এবং খেলনার পাশে তামাকজাত দ্রব্য বিক্রি করতে দেখা যায় এসব দোকানে।

এছাড়া রাজশাহী বিভাগের স্কুল ও খেলার মাঠের পাশে ৮৫ শতাংশ দোকানে তামাকের বিজ্ঞাপন পরিলক্ষিত হয়েছে। এরমধ্যে ৫২ শতাংশ দোকানে স্টিকার/ডামি প্যাকেট/ফেস্টুন/ফ্লায়ারস এর বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হচ্ছে। পোস্টারের মাধ্যমেও ৪৭ শতাংশ দোকানে বিজ্ঞাপন পরিলক্ষিত হয়েছে।

এছাড়া তামাক ক্রয়ে অনুপ্রেরণা জোগাতে ৫৮ শতাংশ দোকানে বিনামূল্যে নমুনা, ৩৯ শতাংশ দোকানে পুরস্কার-প্রণোদনা দেওয়ার বিষয়টি উঠে এসেছে। এছাড়া রাজশাহী বিভাগের ৯৭ শতাংশ দোকানে একক শলাকা সিগারেট বিক্রি হয় বলে গবেষণার ফলাফলে দেখানো হয়েছে।

এসিডির পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. চৌধুরী সারওয়ার জাহান সজল জানান, জরিপে যে তথ্য উঠে এসেছে তা খুবই উদ্বেগজনক। তাই শিশু, কিশোর ও যুবসমাজকে তামাক থেকে দূরে রাখার জন্য জরিপের ভিত্তিতে তারা একটি সুপারিশ তৈরি করছেন। শিগগির সেটি সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে।



রাইজিংবিডি/রাজশাহী/২০ মে ২০১৯/তানজিমুল হক/টিপু

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge